May a good source be with you.

বিজেপির অভিযোগ ভোটে হেরে যাওয়ায় অত্যাচারের পথে তৃনমূলের কর্মী-সমর্থকরা

গ্রামের মানুষকে পানীয় জলের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করার লক্ষ্যে একাধিক টিউবওয়েল ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।

রাজ্যের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস যে ফলাফলের আশায় বুক বেঁধেছিল, সেরকম ফলাফল না হওয়ায়, হতাশার পাশাপাশি শুরু হয়েছে সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার। আর তারই বহিঃপ্রকাশ দেখা গেল বর্ধমান ও বীরভূমের বেশ কিছু এলাকাতে।

রাজ্যের বিজেপি কর্মী সমর্থকরা অভিযোগ করেন এবারের রাজ্যের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের যে ফলাফল হয়েছে তাতে অনেকটাই হাড়ের চেহারা নিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসে। আর তাকে কেন্দ্র করে এলাকাতে শুরু হয়েছে বিভিন্ন রকম ঝামেলা ও অত্যাচার।

বীরভূম ও বর্ধমানে এর বেশ কিছু এলাকাতে গ্রামের মানুষকে পানীয় জলের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করার লক্ষ্যে একাধিক টিউবওয়েল ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। বিজেপির দাবি লোকসভা নির্বাচনের বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্র থেকে আড়াই হাজার ভোটে পরাজিত হয় তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মমতাজ সংঘমিত্রা, আর সেই কারণেই তৃণমূলের দলীয় কর্মী সমর্থকেরা গ্রামের সাধারণ মানুষ যাতে জল না পায় তার জন্য এই জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে।

তারা অভিযোগ করেছেন তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা গ্রামের একটি টিউব ওয়েল অক্ষত রাখেননি। এই ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় তৃণমূল পঞ্চায়েতের সদস্য পঞ্চানন দাস এর বাড়িতে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসীরা। যদিও পঞ্চায়েত সদস্য বলেন এই ঘটনায় তৃণমূলের কোন ভূমিকা নেই। স্থানীয় ক্লাবের ছেলেদের দায় এড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। আর বিজেপি নির্বাচনে জিতেছে বলে অকারনে তৃণমূলের উপর দোষ চাপিয়ে দিতে চাইছেন বলে জানান তিনি।

একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে বীরভূমের রামপুরহাটে কয়েকটি জায়গাতেও। এখানেও বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে টিউবয়েল ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন। রাজ্যে বিজেপির ফলাফলের ভিত্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস অনেকটাই আশাহত হয়েছেন বলে মনে করছেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। আর সেই কারণেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে তৃণমূলের নিচু স্তরের কর্মী ও নেতারা। সেই কারণেই এই ধরনের পথ অবলম্বন করে অকারণ অশান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন বলে মনে করছেন তারা।

अब आप न्यूज़ सेंट्रल 24x7 को हिंदी में पढ़ सकते हैं।यहाँ क्लिक करें
+