May a good source be with you.

অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটের লক্ষ্যে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে বামফ্রন্ট

মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান এবং বীরভূম এই পাঁচটি জেলার, মোট আটটি লোকসভা কেন্দ্রে চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ হবে।

চতুর্থ দফার নির্বাচনে রাজ্যের ৮ টি কেন্দ্রের অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটের লক্ষ্যে কঠিন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন বামফ্রন্ট। মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান এবং বীরভূম এই পাঁচটি জেলার মোট আটটি লোকসভা কেন্দ্রে চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ হবে সোমবার। আর শনিবার বিকালে শেষ হয়েছে সকল কেন্দ্রের নির্বাচনি প্রচার।

১০০% কেন্দ্রীয় বাহিনী নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া সত্ত্বেও, বিগত তিন দফা নির্বাচনের অভিজ্ঞতাই এই আসনগুলোতে অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট গ্রহেণ অনেকটাই চ্যালেঞ্জের মুখে বামপন্থীরা। যদিও শনিবার শেষ প্রচার চালানো পর্যন্ত আটটি কেন্দ্রের নানা অঞ্চলে বামপন্থীরা মানুষের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ রেখে ভোট লুটের সমস্ত রকম চক্রান্ত ব্যর্থ করার আহ্বান জানান।

শনিবার দিন শেষ প্রচার হওয়ার সাথে সাথেই ঝারখান্ড সীমান্ত লাগোয়া সালানপুর, বারাবনি এলাকা জুড়ে বহিরাগত দুষ্কৃতী ও কয়লা মাফিয়া ঢুকতে শুরু করেছে। তৃণমূলের নির্দেশে তারা গ্রামে গ্রামে ঢুকে হুমকি ও ভয় দেখাতে শুরু করে।

বারাবনি বিধানসভার অঞ্চলগুলিতে যারা তৃণমূলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে তাদেরকে অস্ত্র দেখিয়ে গ্রাম থেকে না বেরোনোর হুমকি দিচ্ছে তৃণমূলীরা। একই সঙ্গে চলছে ভোটারদের হুমকি ও ভয় দেখানো। যদিও বিভিন্ন কেন্দ্রের বামফ্রন্ট প্রার্থীরা এলাকায় গিয়ে সাধারণ ভোটারদের সঙ্গে দেখা করে প্রতিরোধের সাহস যুগিয়েছেন। নির্বাচনী প্রচারের শেষ মুহূর্তে দেখা গিয়েছে যে তৃণমূলের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে এবং অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট সম্পন্ন করতে ৮টি কেন্দ্রের প্রার্থীর পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন সাধারণ মানুষ।

আর নিরাপত্তার ব্যাপারে শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ৫৬১ কোম্পানির কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকছে চতুর্থ দফা নির্বাচনে। প্রায় ৯৯ শতাংশ ভোট কেন্দ্রে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিশ্চিত করে ফেলেছেন নির্বাচন কমিশন। আলাদাভাবে এই ৮ টি কেন্দ্রে থাকছে কুইক রেসপন্স টিম। সব মিলিয়ে এই চতুর্থ দফা নির্বাচনের রাজ্যে যে গরম পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তা এখানকার গরমের আবহাওয়া কেও হার মানিয়েছে।

अब आप न्यूज़ सेंट्रल 24x7 को हिंदी में पढ़ सकते हैं।यहाँ क्लिक करें
+